ঢাকা ০১:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সৌদিতে নিহত কুমিল্লার তিন যুবকের মরদেহ দেশে পৌঁছেছে

স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার চান্দিনা ও বরুড়া উপজেলার তিন প্রবাসীর মরদেহ দেশে পৌঁছেছে। আজ শুক্রবার রাতে সৌদি এয়ার লাইন্সের একটি ফ্লাইটে তাদের মরদেহ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়।

আগামীকাল শনিবার ভোরে তাদের নিজ বাড়িতে মরদেহ পৌঁছানোর কথা রয়েছে এবং সকাল ১১টায় জানাজা শেষে পারিবারিক করবস্থানে তাদেরকে দাফন করা হবে।

নিহতরা হলেন কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বরকইট ইউনিয়নের শ্রীমন্তপুর গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে আবুল বাসার (৩৮), একই গ্রামের সায়েদ আলীর ছেলে মোহাম্মদ হোসেন (৩২) এবং বরুড়া উপজেলার বড় হাতুয়া গ্রামের সেলিম (৩৩)। দুর্ঘটনায় আহত তিনজনের মধ্যে শ্রীমন্তপুর গ্রামের শরীফের পিতা আমিনুল ইসলাম মেম্বার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

প্রসঙ্গত, গত ১২ সেপ্টেম্বর সকালে প্রাইভেট কারযোগে সৌদি আরবের দ্বীযানের উদ্দেশে রওনা হওয়ার পর হাফার আল বাতেন রোডের নারীয়া এলাকায় পৌঁছালে এটি নিয়ন্ত্রণ হারালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হন। মারাত্মক আহত অবস্থায় শরীফ, জাকির ও আলমগীর নারীয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সৌদী আরব থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নিহত কামাল হোসেনের পিতা আবুল বাসার।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

সৌদিতে নিহত কুমিল্লার তিন যুবকের মরদেহ দেশে পৌঁছেছে

আপডেট সময় ০৪:৪৫:৩৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭
স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার চান্দিনা ও বরুড়া উপজেলার তিন প্রবাসীর মরদেহ দেশে পৌঁছেছে। আজ শুক্রবার রাতে সৌদি এয়ার লাইন্সের একটি ফ্লাইটে তাদের মরদেহ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়।

আগামীকাল শনিবার ভোরে তাদের নিজ বাড়িতে মরদেহ পৌঁছানোর কথা রয়েছে এবং সকাল ১১টায় জানাজা শেষে পারিবারিক করবস্থানে তাদেরকে দাফন করা হবে।

নিহতরা হলেন কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বরকইট ইউনিয়নের শ্রীমন্তপুর গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে আবুল বাসার (৩৮), একই গ্রামের সায়েদ আলীর ছেলে মোহাম্মদ হোসেন (৩২) এবং বরুড়া উপজেলার বড় হাতুয়া গ্রামের সেলিম (৩৩)। দুর্ঘটনায় আহত তিনজনের মধ্যে শ্রীমন্তপুর গ্রামের শরীফের পিতা আমিনুল ইসলাম মেম্বার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

প্রসঙ্গত, গত ১২ সেপ্টেম্বর সকালে প্রাইভেট কারযোগে সৌদি আরবের দ্বীযানের উদ্দেশে রওনা হওয়ার পর হাফার আল বাতেন রোডের নারীয়া এলাকায় পৌঁছালে এটি নিয়ন্ত্রণ হারালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হন। মারাত্মক আহত অবস্থায় শরীফ, জাকির ও আলমগীর নারীয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সৌদী আরব থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নিহত কামাল হোসেনের পিতা আবুল বাসার।