ঢাকা ০৪:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার এক পরিবারের তিনজন নিহত

প্রবাস ডেস্কঃ
সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের গুনানন্দী গ্রামের একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন নারী ও শিশুসহ আরো তিনজন। এদিকে পরিবারের তিন সদস্যকে হারিয়ে ওই বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।
জানা যায়, কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কোটবাড়ি মাঝিপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রাজ্জাকের স্ত্রী শাহানারা বেগম তার নাতি ও নাতনি নিয়ে ওমরা হজ্ব পালন করার উদ্দেশ্যে গত শনিবার রাতে সৌদি আরবে বসবাসরত মেয়ে শাম্মি আক্তার ও জামাতা তোফাজ্জলের নিকট যাচ্ছিলেন। গত রবিবার তারা সৌদি আরবে পৌঁছালে শাশুড়িসহ অন্যদের আনতে স্ত্রীকে নিয়ে বিমানবন্দরে তোফাজ্জল হোসেন। ওখান থেকে ফেরার পথে সকাল সাড়ে ৭টায় তাদের বহনকারী গাড়িটি জেদ্দা-আলবাহার সড়কের বাতুয়ায় পৌঁছালে সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান প্রবাসী তোফাজ্জল হোসেন, তার সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলে শাহরিয়ার হোসেন ও শাশুড়ি শাহনারা বেগম। ওই দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয় তোফাজ্জলের মেয়ে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী নিহা ও তিন বছর বয়সের মেয়ে আফনান এবং স্ত্রী শাম্মি আক্তার।
তোফাজ্জল হোসেনের বড় ভাই আবুল কালাম ও আবুল খায়ের জানান, তার ভাই তোফাজ্জল হোসেন স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে সৌদি আরবে আছেন। দেশ থেকে যাওয়া তার শাশুড়ি ও ২ সন্তানকে বিমানবন্দর থেকে নিয়ে বাসায় ফেরার পথে দুর্ঘটনার মুখে পড়েন।
এ বিষয়ে আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম টুটুল জানান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে নিহতদের মরদেহ দেশে আনতে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার এক পরিবারের তিনজন নিহত

আপডেট সময় ০১:৫৭:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০১৭
প্রবাস ডেস্কঃ
সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের গুনানন্দী গ্রামের একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন নারী ও শিশুসহ আরো তিনজন। এদিকে পরিবারের তিন সদস্যকে হারিয়ে ওই বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।
জানা যায়, কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কোটবাড়ি মাঝিপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রাজ্জাকের স্ত্রী শাহানারা বেগম তার নাতি ও নাতনি নিয়ে ওমরা হজ্ব পালন করার উদ্দেশ্যে গত শনিবার রাতে সৌদি আরবে বসবাসরত মেয়ে শাম্মি আক্তার ও জামাতা তোফাজ্জলের নিকট যাচ্ছিলেন। গত রবিবার তারা সৌদি আরবে পৌঁছালে শাশুড়িসহ অন্যদের আনতে স্ত্রীকে নিয়ে বিমানবন্দরে তোফাজ্জল হোসেন। ওখান থেকে ফেরার পথে সকাল সাড়ে ৭টায় তাদের বহনকারী গাড়িটি জেদ্দা-আলবাহার সড়কের বাতুয়ায় পৌঁছালে সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান প্রবাসী তোফাজ্জল হোসেন, তার সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলে শাহরিয়ার হোসেন ও শাশুড়ি শাহনারা বেগম। ওই দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয় তোফাজ্জলের মেয়ে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী নিহা ও তিন বছর বয়সের মেয়ে আফনান এবং স্ত্রী শাম্মি আক্তার।
তোফাজ্জল হোসেনের বড় ভাই আবুল কালাম ও আবুল খায়ের জানান, তার ভাই তোফাজ্জল হোসেন স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে সৌদি আরবে আছেন। দেশ থেকে যাওয়া তার শাশুড়ি ও ২ সন্তানকে বিমানবন্দর থেকে নিয়ে বাসায় ফেরার পথে দুর্ঘটনার মুখে পড়েন।
এ বিষয়ে আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম টুটুল জানান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে নিহতদের মরদেহ দেশে আনতে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।