ঢাকা ১১:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হজের নিবন্ধন শুরু, প্রথম ফ্লাইট ১৪ জুলাই

ধর্ম ও জীবন ডেস্কঃ
এবছর হজে যেতে প্রাক-নিবন্ধিত হজযাত্রীদের মূল নিবন্ধন শুরু হয়েছে আজ বৃহস্পতিবার। এ নিবন্ধন চলবে আগামী ১১ মার্চ পর্যন্ত। এছাড়া চলতি বছর হজে যাওয়ার ফ্লাইট শুরু হবে আগামী ১৪ জুলাই।
বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সরকারি ব্যবস্থাপনায় চলতি বছর হজযাত্রীদের নিবন্ধন কার্যক্রমের উদ্বোধনের পর ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান এ তথ্য জানান।
ধর্মমন্ত্রী বলেন, হজে প্রতারণা ঠেকাতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে সরকার। এমনকি হাজীদের যাতে কোনো রকম বিড়ম্বনা পোহাতে না হয়, সেজন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, আগের বছরগুলোতে হজযাত্রীদের তথ্য যাচাইয়ের লক্ষ্যে পুলিশ ভেরিফিকেশনের বাধ্যবাধকতা ছিল। নতুন হজ নীতিতে পুলিশ ভেরিফিকেশনের কার্যক্রম বিলুপ্ত করা হয়েছে। নিবন্ধনের পর কোনো হজযাত্রী প্রতিস্থাপন করা যাবে না। তবে মৃত্যু বা গুরুতর অসুস্থতার কারণে সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ হজযাত্রী প্রতিস্থাপনের সুযোগ পাবেন।
মন্ত্রী বলেন, কোনো দালাল বা মধ্যস্বত্বভোগী তথাকথিত কাফেলা, গ্রুপ লিডারের সঙ্গে হজের লেনদেন করে প্রতারিত হলে সরকার এর দায় নেবে না। এবার বিভিন্ন রকমের জটিলতা নিরসনে হজ যাত্রীদের প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করা হবে।
চলতি বছরও দুটি প্যাকেজের মাধ্যমে হজ পালনের বিধান রেখে ‘হজ প্যাকেজ, ১৪৩৯ হিজরি/২০১৮ সাল’ গত সোমবার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। একই সঙ্গে সংশোধিত ‘জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি ১৪৩৯ (২০১৮)’ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এবার হজ পালনে প্যাকেজ-১ এ ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ এবং প্যাকেজ-২ এ ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা খরচ করতে হবে। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে চলতি বছরের ২১ আগস্ট (৯ জিলহ্জ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

হজের নিবন্ধন শুরু, প্রথম ফ্লাইট ১৪ জুলাই

আপডেট সময় ০১:৪৮:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ মার্চ ২০১৮
ধর্ম ও জীবন ডেস্কঃ
এবছর হজে যেতে প্রাক-নিবন্ধিত হজযাত্রীদের মূল নিবন্ধন শুরু হয়েছে আজ বৃহস্পতিবার। এ নিবন্ধন চলবে আগামী ১১ মার্চ পর্যন্ত। এছাড়া চলতি বছর হজে যাওয়ার ফ্লাইট শুরু হবে আগামী ১৪ জুলাই।
বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সরকারি ব্যবস্থাপনায় চলতি বছর হজযাত্রীদের নিবন্ধন কার্যক্রমের উদ্বোধনের পর ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান এ তথ্য জানান।
ধর্মমন্ত্রী বলেন, হজে প্রতারণা ঠেকাতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে সরকার। এমনকি হাজীদের যাতে কোনো রকম বিড়ম্বনা পোহাতে না হয়, সেজন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, আগের বছরগুলোতে হজযাত্রীদের তথ্য যাচাইয়ের লক্ষ্যে পুলিশ ভেরিফিকেশনের বাধ্যবাধকতা ছিল। নতুন হজ নীতিতে পুলিশ ভেরিফিকেশনের কার্যক্রম বিলুপ্ত করা হয়েছে। নিবন্ধনের পর কোনো হজযাত্রী প্রতিস্থাপন করা যাবে না। তবে মৃত্যু বা গুরুতর অসুস্থতার কারণে সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ হজযাত্রী প্রতিস্থাপনের সুযোগ পাবেন।
মন্ত্রী বলেন, কোনো দালাল বা মধ্যস্বত্বভোগী তথাকথিত কাফেলা, গ্রুপ লিডারের সঙ্গে হজের লেনদেন করে প্রতারিত হলে সরকার এর দায় নেবে না। এবার বিভিন্ন রকমের জটিলতা নিরসনে হজ যাত্রীদের প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করা হবে।
চলতি বছরও দুটি প্যাকেজের মাধ্যমে হজ পালনের বিধান রেখে ‘হজ প্যাকেজ, ১৪৩৯ হিজরি/২০১৮ সাল’ গত সোমবার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। একই সঙ্গে সংশোধিত ‘জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি ১৪৩৯ (২০১৮)’ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এবার হজ পালনে প্যাকেজ-১ এ ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ এবং প্যাকেজ-২ এ ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা খরচ করতে হবে। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে চলতি বছরের ২১ আগস্ট (৯ জিলহ্জ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে।