ঢাকা ১১:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হরতাল শেষে মঙ্গলবার বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

: জাতীয় :

ঢাকা সিটি নির্বাচনের ভোটের ফল প্রত্যাখ্যান করে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের পর এবার বিক্ষোভ কর্মসূচি দিয়েছে বিএনপি। আগামী মঙ্গলবার রাজধানীর থানায় থানায় এই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি।

নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রবিবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এসময় ঢাকার দুই সিটিতে দলটির মনোনীত দুই পরাজিত মেয়রপ্রার্থী ইশরাক  হোসেন ও তাবিথ আউয়াল উপস্থিত ছিলেন।

জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে হরতাল সফল করেছে- এমন দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে হরতাল পালন করেছে, আমরা তার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।’

তিনি বলেন, ‘এই হরতাল শুধুমাত্র সিটি নির্বাচনে কারচুপির প্রতিবাদে ছিল না। এটা মূলত গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং দেশনেত্রী গণতন্ত্রের মাতা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ছিল।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আগামী ৪ তারিখে ঢাকা শহরে থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে। একই সাথে সিটি নির্বাচনে অনিয়ম কারচুপি হয়েছে সে বিষয়ে গণমাধ্যমের কাছে তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরবেন আমাদের দুই মেয়র প্রার্থী তাবিথ এবং প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন।’

নির্বাচনের ওপর মানুষের আস্থা চলে যাওয়ায় ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে মন্তব্য করে ফখরুল আরও বলেন, ‘মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ায় জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে কমিশনকে।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

হরতাল শেষে মঙ্গলবার বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

আপডেট সময় ০২:০০:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২০

: জাতীয় :

ঢাকা সিটি নির্বাচনের ভোটের ফল প্রত্যাখ্যান করে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের পর এবার বিক্ষোভ কর্মসূচি দিয়েছে বিএনপি। আগামী মঙ্গলবার রাজধানীর থানায় থানায় এই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি।

নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রবিবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এসময় ঢাকার দুই সিটিতে দলটির মনোনীত দুই পরাজিত মেয়রপ্রার্থী ইশরাক  হোসেন ও তাবিথ আউয়াল উপস্থিত ছিলেন।

জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে হরতাল সফল করেছে- এমন দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে হরতাল পালন করেছে, আমরা তার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।’

তিনি বলেন, ‘এই হরতাল শুধুমাত্র সিটি নির্বাচনে কারচুপির প্রতিবাদে ছিল না। এটা মূলত গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং দেশনেত্রী গণতন্ত্রের মাতা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ছিল।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আগামী ৪ তারিখে ঢাকা শহরে থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে। একই সাথে সিটি নির্বাচনে অনিয়ম কারচুপি হয়েছে সে বিষয়ে গণমাধ্যমের কাছে তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরবেন আমাদের দুই মেয়র প্রার্থী তাবিথ এবং প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন।’

নির্বাচনের ওপর মানুষের আস্থা চলে যাওয়ায় ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে মন্তব্য করে ফখরুল আরও বলেন, ‘মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ায় জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে কমিশনকে।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।