ঢাকা ০১:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হিন্দুত্ববাদী, জাতিসত্তা বিধ্বংসী বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিল করতে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ

জাতীয় ডেস্কঃ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তরের যৌথ উদ্যোগে বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে আজ শুক্রবার বিকাল ৪ টায় বায়তুল মুকাররম উত্তর গেটে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহানগর উত্তরের সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওঃ শেখ ফজলে বারী মাসউদ। উক্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওঃ গাজী আতাউর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন নব্বই শতাংশ মুসলমানের দেশে সরকার মানুষের ধর্মীয় অনুভূতির প্রতি খেয়াল না রেখে সর্বনাশা হিন্দুত্ববাদী ও নাস্তিক্যবাদী শিক্ষানীতি চাপিয়ে দেয়ার পাঁয়তারা করছে। বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাস্তবায়ন হলে মুসলিম জাতিসত্তা ধ্বংস হয়ে ঘরে ঘরে সন্ত্রাসী, জঙ্গী ও নাস্তিক তৈরী হবে। কারণ ইসলামী সভ্যতা সংস্কৃতি বাদ দিয়ে পাঠাবলি, পূজাপার্বণ ও হিন্দু ধর্মে বিশ্বাস অনুযায়ী গরুর মহত্ত্ব মুসলমান সন্তানদের শিক্ষা দেয়া হচ্ছে। যা আদৌ এ দেশের তৌহিদী জনতা মেনে নিতে পারে না। তাই সরকারকে জনগনের মনের ভাষা উপলব্ধি করে বিতর্কিত শিক্ষানীতি ও শিক্ষা আইন অবিলম্বে বাতিল করতে হবে। তা না হলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা অভিমুখী লং মার্চসহ কঠিনতর কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।

সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওঃ ইমতিয়াজ আলম, আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, আলহাজ্ব আনোয়ার হোসাইন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুর রহমান, মুহাঃ মোশারফ হোসেন, মাওঃ এবিএম জাকারিয়া, মুফতি ফরিদুল ইসলাম, এইচ এম সাইফুল ইসলাম, মাছউদুর রহমান, শেখ নুরুন্নবী প্রমূখ।

ট্যাগস

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

হিন্দুত্ববাদী, জাতিসত্তা বিধ্বংসী বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিল করতে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ

আপডেট সময় ০৩:৪০:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ অগাস্ট ২০১৬
জাতীয় ডেস্কঃ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তরের যৌথ উদ্যোগে বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে আজ শুক্রবার বিকাল ৪ টায় বায়তুল মুকাররম উত্তর গেটে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহানগর উত্তরের সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওঃ শেখ ফজলে বারী মাসউদ। উক্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওঃ গাজী আতাউর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন নব্বই শতাংশ মুসলমানের দেশে সরকার মানুষের ধর্মীয় অনুভূতির প্রতি খেয়াল না রেখে সর্বনাশা হিন্দুত্ববাদী ও নাস্তিক্যবাদী শিক্ষানীতি চাপিয়ে দেয়ার পাঁয়তারা করছে। বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাস্তবায়ন হলে মুসলিম জাতিসত্তা ধ্বংস হয়ে ঘরে ঘরে সন্ত্রাসী, জঙ্গী ও নাস্তিক তৈরী হবে। কারণ ইসলামী সভ্যতা সংস্কৃতি বাদ দিয়ে পাঠাবলি, পূজাপার্বণ ও হিন্দু ধর্মে বিশ্বাস অনুযায়ী গরুর মহত্ত্ব মুসলমান সন্তানদের শিক্ষা দেয়া হচ্ছে। যা আদৌ এ দেশের তৌহিদী জনতা মেনে নিতে পারে না। তাই সরকারকে জনগনের মনের ভাষা উপলব্ধি করে বিতর্কিত শিক্ষানীতি ও শিক্ষা আইন অবিলম্বে বাতিল করতে হবে। তা না হলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা অভিমুখী লং মার্চসহ কঠিনতর কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।

সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওঃ ইমতিয়াজ আলম, আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, আলহাজ্ব আনোয়ার হোসাইন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুর রহমান, মুহাঃ মোশারফ হোসেন, মাওঃ এবিএম জাকারিয়া, মুফতি ফরিদুল ইসলাম, এইচ এম সাইফুল ইসলাম, মাছউদুর রহমান, শেখ নুরুন্নবী প্রমূখ।