ঢাকা ১১:৫৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় অনুমতিবিহীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও অবস্থান ধর্মঘট পালন

মো. তপন সরকার, হোমনা(কুমিল্লা)প্রতিনিধি:

কুমিল্লার হোমনায় অনুমতিবিহীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও  অবস্থান ধর্মঘট  পালন করা হয়েছে।

এতে অনুমতিবিহীন হোমনা অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ মডেল স্কুল এন্ড কলেজের কার্যক্রম বন্ধের দাবী জাননো হয়। গতকাল রবিবার দুপুর ২ ঘন্টা ব্যাপী উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে হোমনা বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ মানববন্ধন ও অস্থান ধর্মঘট অনুষ্ঠিত হয়।

এতে  উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সরকার, সাধারণ সম্পাদক ফোরকানুল ইসলাম পলাশ, মাহফুজুল ইসলাম, মো. তুষার আহম্মেদ প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। 
জানাগেছে,  গত ১৫ জানুয়ারী  অনুমতিবিহীন  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে উপজেলা প্রশাসন । ইউএনও চাপ্তি চাকমার স্বাক্ষরিত চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে  চটকদার বিজ্ঞাপন,অর্থের প্রলোভনসহ ভয়ভীতি প্রদর্শন করে অনুমতি বিহীন যে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ভর্তি করে পাঠদান কার্যক্রম চালু করেছেন তা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এ দিকে পৌর এলাকা সহ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাঙের ছাতার মত গড়ে উঠেছে অনুমতিবিহীন  মাধ্যমিক, মাদরাসা ও কিন্ডার গার্টেন স্কুল। এ সব প্রতিষ্ঠান  সরকারী নীতমালা তোয়াক্কানা করে  সরকারী বিনা মূল্যের বই ছাত্র ছাত্রীদের নিকট সরবরাহ করে সেশন ফি, ভর্তির ফি সহ নানা অজুহাতে অর্থ বানিজ্য করে আসছে। এ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চটকদার বিজ্ঞাপন ও বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার লোভে পড়ে তাদের সন্তানদের উন্নত মানের শিক্ষার আশায় প্রতারিত হচ্ছে অভিভাবক ।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

হোমনায় অনুমতিবিহীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও অবস্থান ধর্মঘট পালন

আপডেট সময় ০১:১২:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২০

মো. তপন সরকার, হোমনা(কুমিল্লা)প্রতিনিধি:

কুমিল্লার হোমনায় অনুমতিবিহীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও  অবস্থান ধর্মঘট  পালন করা হয়েছে।

এতে অনুমতিবিহীন হোমনা অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ মডেল স্কুল এন্ড কলেজের কার্যক্রম বন্ধের দাবী জাননো হয়। গতকাল রবিবার দুপুর ২ ঘন্টা ব্যাপী উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে হোমনা বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ মানববন্ধন ও অস্থান ধর্মঘট অনুষ্ঠিত হয়।

এতে  উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সরকার, সাধারণ সম্পাদক ফোরকানুল ইসলাম পলাশ, মাহফুজুল ইসলাম, মো. তুষার আহম্মেদ প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। 
জানাগেছে,  গত ১৫ জানুয়ারী  অনুমতিবিহীন  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে উপজেলা প্রশাসন । ইউএনও চাপ্তি চাকমার স্বাক্ষরিত চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে  চটকদার বিজ্ঞাপন,অর্থের প্রলোভনসহ ভয়ভীতি প্রদর্শন করে অনুমতি বিহীন যে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ভর্তি করে পাঠদান কার্যক্রম চালু করেছেন তা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এ দিকে পৌর এলাকা সহ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাঙের ছাতার মত গড়ে উঠেছে অনুমতিবিহীন  মাধ্যমিক, মাদরাসা ও কিন্ডার গার্টেন স্কুল। এ সব প্রতিষ্ঠান  সরকারী নীতমালা তোয়াক্কানা করে  সরকারী বিনা মূল্যের বই ছাত্র ছাত্রীদের নিকট সরবরাহ করে সেশন ফি, ভর্তির ফি সহ নানা অজুহাতে অর্থ বানিজ্য করে আসছে। এ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চটকদার বিজ্ঞাপন ও বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার লোভে পড়ে তাদের সন্তানদের উন্নত মানের শিক্ষার আশায় প্রতারিত হচ্ছে অভিভাবক ।