ঢাকা ০৮:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তিন গ্রামের দীর্ঘ ৬০ বছর পর দ্বন্ধের অবসান

মো.আবু রায়হান চৌধুরী, হোমনা (কুমিল্লা) থেকেঃ

কুমিল্লার হোমনা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদের নিজস্ব উদ্যোগে ও যুব সমাজের প্রচেষ্ঠায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তিন গ্রামের দীর্ঘ ৬০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চলে আসা দলাদলি,মারামারি ও দ্বন্ধের অবসান হয়েছে বলে জানা গেছে।

রোববার উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের যুব সমাজের অক্লান্ত প্রচেষ্ঠায়,ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সওদাগর এর পরামর্শে,হোমনা পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট মো. নজরুল ইসলাম সরকার ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল এর সার্বিক সহযোগিতায়, হোমনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ রসূল আহমেদ নিজামী, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. নাজমুল হক সহ হোমনা থানা পুলিশ এর নেতৃত্বে সকল গ্রামবাসীর সর্বসম্মতি ক্রমে এক সামাজিক আলোচনা সভার মাধম্যে দ্বন্ধের সমাপ্তি ঘটিয়ে একটি নজিরবিহীন ও স্মরনীয় ঘটনা ঘটেছে।

এলাকায় খোজ নিয়ে জানা যায়,দুলালপুর ইউনিয়নের দৌলতপুর,মিঠাইভাঙ্গা ও আড়ালিয়াকান্দি গ্রামবাসীর মধ্যে প্রায় দীর্ঘ ৬০ বছরেরও বেশি সময় ধরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চলে আসা এই মধ্যযুগীয় বর্বরতা বা  গ্রাম্য দলাদলির কারনে দৌলতপুর,মিঠাইভাঙ্গা ও আড়ালিয়াকান্দি গ্রামের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়ে। গ্রামের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় বিঘœতা ঘটে, যুব সমাজ জড়িয়ে পড়ে মাদকাসক্তে, বেড়ে যায় গ্রামে চুরি,ডাকাতি,ছিনতাই সহ নানান প্রকার অপকর্ম, যার ফলে সমাজের শান্তি বিনষ্ট হয়। সম্প্রতি এই ঘৃন্য ও জঘন্য দলাদলির বিরুদ্ধে তিন গ্রামের শিক্ষিত যুব সমাজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ব্যাপক আন্দোলন গড়ে তুলেন। এব্যাপারে সরকারি তিতুমীর কলেজের মেধাবী ছাএ গাজী রাশিদুল ইসলাম,আমেরিকান প্রবাসী আবদুর রাজ্জাক,ইস্পেন প্রবাসী রিজন,আলাল সহ তিন গ্রামের যুব সমাজের উদ্যোগে ও তাদের নিরলস পরিশ্রমে এবং হোমনা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদের একান্ত আন্তরিকতায় অবশেষে এই ঘৃণিত ও জঘন্য কর্মকন্ডের বা দলাদলির স্থায়ী মিমাংশার মাধম্যে অবসান ঘটে।

এতে গ্রামবাসীর মাঝে আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। পুরো এলাকা জুড়ে যেন আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। এ প্রসঙ্গে যুব সমাজের পক্ষ হতে সরকারি তিতুমীর কলেজের মেধাবী ছাএ গাজী রাশিদুল ইসলাম বলেন,প্রথমে আমরা ফেইসবুকে এই দলাদলির বিরুদ্ধে ব্যাপক আন্দোলন গড়ে তুলি। এতে গ্রামের প্রবাসী ভাইয়েরাও আমাদের অনেক সাহায্য করেছে। পরে বিষয়টির স্থায়ী সমাধানের জন্য আমরা অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ স্যারের সাথে কথা বলি। এতে আমাদের পাশে ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সওদাগর, আব্দু সামাদ মেম্বার তাদের সবার আন্তরিকতার কারনেই আমাদের আজকের এই বিজয়। আমরা চাই এই শান্তি যেন আজীবন বজায় থাকে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, হোমনা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ, ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সওদাগর, হোমনা পৌর মেয়র এ্যাড. মো.নজরুল ইসলাম সরকার,উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মো. ফজলুল হক মোল্লা,পৌর আ’লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল, হোমনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রসুল আহমদ নিজামী, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. নাজমুল হক, বিআরডিবির চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন সরকার, ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন পাঠান, মফিজুল ইসলাম গনি,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সামসুুজ্জামান প্রমুখ।

তিন গ্রামের মাত্বরদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আব্দু সামাদ মেম্বার,জোনাব আলী,অরুন সরকার,গাজী ইলিয়াস,হোসেন মোল্লা,কালা মেম্বার,নাছির মেম্বার,অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন,নুরু মিয়া বাঘা,আবুল কাশেম বাঘা প্রমুখ সহ তিন গ্রামের কয়েক সহ¯্রাধিক জনসাধারণ।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

হোমনায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তিন গ্রামের দীর্ঘ ৬০ বছর পর দ্বন্ধের অবসান

আপডেট সময় ০৪:১৪:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭
মো.আবু রায়হান চৌধুরী, হোমনা (কুমিল্লা) থেকেঃ

কুমিল্লার হোমনা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদের নিজস্ব উদ্যোগে ও যুব সমাজের প্রচেষ্ঠায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তিন গ্রামের দীর্ঘ ৬০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চলে আসা দলাদলি,মারামারি ও দ্বন্ধের অবসান হয়েছে বলে জানা গেছে।

রোববার উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের যুব সমাজের অক্লান্ত প্রচেষ্ঠায়,ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সওদাগর এর পরামর্শে,হোমনা পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট মো. নজরুল ইসলাম সরকার ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল এর সার্বিক সহযোগিতায়, হোমনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ রসূল আহমেদ নিজামী, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. নাজমুল হক সহ হোমনা থানা পুলিশ এর নেতৃত্বে সকল গ্রামবাসীর সর্বসম্মতি ক্রমে এক সামাজিক আলোচনা সভার মাধম্যে দ্বন্ধের সমাপ্তি ঘটিয়ে একটি নজিরবিহীন ও স্মরনীয় ঘটনা ঘটেছে।

এলাকায় খোজ নিয়ে জানা যায়,দুলালপুর ইউনিয়নের দৌলতপুর,মিঠাইভাঙ্গা ও আড়ালিয়াকান্দি গ্রামবাসীর মধ্যে প্রায় দীর্ঘ ৬০ বছরেরও বেশি সময় ধরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চলে আসা এই মধ্যযুগীয় বর্বরতা বা  গ্রাম্য দলাদলির কারনে দৌলতপুর,মিঠাইভাঙ্গা ও আড়ালিয়াকান্দি গ্রামের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়ে। গ্রামের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় বিঘœতা ঘটে, যুব সমাজ জড়িয়ে পড়ে মাদকাসক্তে, বেড়ে যায় গ্রামে চুরি,ডাকাতি,ছিনতাই সহ নানান প্রকার অপকর্ম, যার ফলে সমাজের শান্তি বিনষ্ট হয়। সম্প্রতি এই ঘৃন্য ও জঘন্য দলাদলির বিরুদ্ধে তিন গ্রামের শিক্ষিত যুব সমাজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ব্যাপক আন্দোলন গড়ে তুলেন। এব্যাপারে সরকারি তিতুমীর কলেজের মেধাবী ছাএ গাজী রাশিদুল ইসলাম,আমেরিকান প্রবাসী আবদুর রাজ্জাক,ইস্পেন প্রবাসী রিজন,আলাল সহ তিন গ্রামের যুব সমাজের উদ্যোগে ও তাদের নিরলস পরিশ্রমে এবং হোমনা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদের একান্ত আন্তরিকতায় অবশেষে এই ঘৃণিত ও জঘন্য কর্মকন্ডের বা দলাদলির স্থায়ী মিমাংশার মাধম্যে অবসান ঘটে।

এতে গ্রামবাসীর মাঝে আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। পুরো এলাকা জুড়ে যেন আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। এ প্রসঙ্গে যুব সমাজের পক্ষ হতে সরকারি তিতুমীর কলেজের মেধাবী ছাএ গাজী রাশিদুল ইসলাম বলেন,প্রথমে আমরা ফেইসবুকে এই দলাদলির বিরুদ্ধে ব্যাপক আন্দোলন গড়ে তুলি। এতে গ্রামের প্রবাসী ভাইয়েরাও আমাদের অনেক সাহায্য করেছে। পরে বিষয়টির স্থায়ী সমাধানের জন্য আমরা অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ স্যারের সাথে কথা বলি। এতে আমাদের পাশে ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সওদাগর, আব্দু সামাদ মেম্বার তাদের সবার আন্তরিকতার কারনেই আমাদের আজকের এই বিজয়। আমরা চাই এই শান্তি যেন আজীবন বজায় থাকে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, হোমনা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ, ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সওদাগর, হোমনা পৌর মেয়র এ্যাড. মো.নজরুল ইসলাম সরকার,উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মো. ফজলুল হক মোল্লা,পৌর আ’লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল, হোমনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রসুল আহমদ নিজামী, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. নাজমুল হক, বিআরডিবির চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন সরকার, ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন পাঠান, মফিজুল ইসলাম গনি,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সামসুুজ্জামান প্রমুখ।

তিন গ্রামের মাত্বরদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আব্দু সামাদ মেম্বার,জোনাব আলী,অরুন সরকার,গাজী ইলিয়াস,হোসেন মোল্লা,কালা মেম্বার,নাছির মেম্বার,অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন,নুরু মিয়া বাঘা,আবুল কাশেম বাঘা প্রমুখ সহ তিন গ্রামের কয়েক সহ¯্রাধিক জনসাধারণ।