ঢাকা ১২:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় এক রাত্রে ২ গ্রামের ১২টি বাড়িতে দুধর্ষ ডাকাতি

মো.আবু রায়হান চৌধুরী, হোমনা থেকেঃ

কুমিল্লার হোমনা উপজেলার ২টি গ্রামে এক রাত্রে ১২টি বাড়িতে দুধর্ষ ডাকাতির ঘটনা সংগঠিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাত্র আনুমানিক ২ ঘটিকার দিকে হোমনা পৌরসভাধীন লটিয়া ও শ্রীমদ্দি গ্রামে।

এসময় ডাকাতরা বাড়ির ভিতরে থাকা লোকজনের কাছ থেকে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংঙ্কার সহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকার মালামাল ছিনিয়ে নেয়। ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে জানা গেছে, ঘটনার দিন রাত্র আনুমানিক প্রায় ২ ঘটিকার দিকে হোমনা পৌরসভাধীন লটিয়া ও শ্রীমদ্দি গ্রামে এক সাথে ১২টি বাড়িতে একই সময়ে বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করে বাড়িতে থাকা লোকজনের হাত-পা ও মুখ বেধে তাদেরকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতরা স্টীলের আলমারী, সোকেশ ও সিন্ধুকের তালা ভেঙ্গে নগদ অর্থ,স্বর্ণালংঙ্কার ও মূল্যবান মালামাল সহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকা ডাকাতি করে নিয়ে যায়।

ডাকাতের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসীরা হচ্ছে, শ্রীমদ্দি গ্রামের বাচ্চু মিয়া, হবি মিয়া হাজী ও জালাল মিয়ার পরিবার,লটিয়া গ্রামের-আব্দুল বাতেন সরকার,হক মিয়া,আবুল হোসেন,আবুল হাসেম,জুলহাস মিয়া,হারিছ মিয়া, জয়নাল বেপারী,কবির মিয়া ও আল-আমিন মিয়ার পরিবার। তবে লটিয়া গ্রামের ডাকাতির ঘটনাটি এলাকাবাসীর বক্তব্য অনুযায়ী গ্রামের কিছু চিহ্নিত খারাপ লোকদের সহযোগিতায়ই এই ডাকাতির ঘটনা সংগঠিত হয়েছে।

এব্যাপারে হোমনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ রসূল আহাম্মেদ নিজামীর সাথে তার মোঠো ফোনে ফোন দিয়ে কথা বলতে চাইলে তিনি ফোনে কোন বক্তব্য দিতে রাজি হন নি  এবং আমাকে থানায় গিয়ে তথ্য নিতে বলেন এই বলে তিনি ফোনের সংযোগ কেটে দেন। এব্যাপারে হোমনা পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, ডাকাতির ঘটনাটি আমার জানা নেই। তবে আমি খোজ খবর নিবো।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

হোমনায় এক রাত্রে ২ গ্রামের ১২টি বাড়িতে দুধর্ষ ডাকাতি

আপডেট সময় ০২:৪৯:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ জুন ২০১৭
মো.আবু রায়হান চৌধুরী, হোমনা থেকেঃ

কুমিল্লার হোমনা উপজেলার ২টি গ্রামে এক রাত্রে ১২টি বাড়িতে দুধর্ষ ডাকাতির ঘটনা সংগঠিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাত্র আনুমানিক ২ ঘটিকার দিকে হোমনা পৌরসভাধীন লটিয়া ও শ্রীমদ্দি গ্রামে।

এসময় ডাকাতরা বাড়ির ভিতরে থাকা লোকজনের কাছ থেকে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংঙ্কার সহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকার মালামাল ছিনিয়ে নেয়। ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে জানা গেছে, ঘটনার দিন রাত্র আনুমানিক প্রায় ২ ঘটিকার দিকে হোমনা পৌরসভাধীন লটিয়া ও শ্রীমদ্দি গ্রামে এক সাথে ১২টি বাড়িতে একই সময়ে বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করে বাড়িতে থাকা লোকজনের হাত-পা ও মুখ বেধে তাদেরকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতরা স্টীলের আলমারী, সোকেশ ও সিন্ধুকের তালা ভেঙ্গে নগদ অর্থ,স্বর্ণালংঙ্কার ও মূল্যবান মালামাল সহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকা ডাকাতি করে নিয়ে যায়।

ডাকাতের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসীরা হচ্ছে, শ্রীমদ্দি গ্রামের বাচ্চু মিয়া, হবি মিয়া হাজী ও জালাল মিয়ার পরিবার,লটিয়া গ্রামের-আব্দুল বাতেন সরকার,হক মিয়া,আবুল হোসেন,আবুল হাসেম,জুলহাস মিয়া,হারিছ মিয়া, জয়নাল বেপারী,কবির মিয়া ও আল-আমিন মিয়ার পরিবার। তবে লটিয়া গ্রামের ডাকাতির ঘটনাটি এলাকাবাসীর বক্তব্য অনুযায়ী গ্রামের কিছু চিহ্নিত খারাপ লোকদের সহযোগিতায়ই এই ডাকাতির ঘটনা সংগঠিত হয়েছে।

এব্যাপারে হোমনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ রসূল আহাম্মেদ নিজামীর সাথে তার মোঠো ফোনে ফোন দিয়ে কথা বলতে চাইলে তিনি ফোনে কোন বক্তব্য দিতে রাজি হন নি  এবং আমাকে থানায় গিয়ে তথ্য নিতে বলেন এই বলে তিনি ফোনের সংযোগ কেটে দেন। এব্যাপারে হোমনা পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, ডাকাতির ঘটনাটি আমার জানা নেই। তবে আমি খোজ খবর নিবো।