ঢাকা ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় টেলিমেডিসিনসেবা উদ্বোধন

মোর্শেদুল ইসলাম শাজু, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার হোমনায় টেলিমেডিসিন সেবার উদ্বোধন করা হয়েছে।

সোমবার উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল লটিয়া গ্রামে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় টেলিমেডিসিন কার্যক্রমের অধীনে ফাতেমা টেলিমেডিসিন সেন্টারের তত্ত্বাবধানে এ সেবার আনুষ্টানিক উদ্বোধন করা হয়।

হোমনা পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট মো. নজরুল ইসলাম এর উদ্বোধন করেন। এর মাধ্যমে গ্রামীণ জনগণের নিকট মানসম্মত ও সুলভ স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের লক্ষে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ‘টেলিমেড’ সেবা চালু করা হয়েছে। এ সেবার আওতায় দুই জন প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্যকর্মী (টেলি আপা) বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ইন্টারনেটের মাধ্যমে সরাসরি ঢাকার বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররের পরামর্শ গ্রহণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। রোগী সাথে সাথে সরাসরি তার নিজের মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ডাক্তারের পরামর্শ পেয়ে যাচ্ছেন। টেলিমেডিসিনসেবা কার্যক্রম স্থানীয় উদ্যেক্তাদের মাধ্যমে ভবিষ্যতে স্বনির্ভর হওয়ার একটি মডেল। বর্তমানে ১৪টি কেন্দ্র চালু আছে।

গত ২০১৫ সালের ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারি ২০১৭ সাল পর্যন্ত চার হাজার রোগীকে এ সেবা দেওয়া হয়েছে। যার সত্তর শতাংশ হচ্ছেন বৃদ্ধ, মহিলা ও শিশু। সারা দেশে ইউনিয়নভিত্তিক কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।

হোমনায় টেলিমেডিসিনসেবা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর কাউন্সিলর সোবহান মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য মো. আমির হোসেনসহ স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিগণ।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

হোমনায় টেলিমেডিসিনসেবা উদ্বোধন

আপডেট সময় ০২:৪০:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
মোর্শেদুল ইসলাম শাজু, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার হোমনায় টেলিমেডিসিন সেবার উদ্বোধন করা হয়েছে।

সোমবার উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল লটিয়া গ্রামে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় টেলিমেডিসিন কার্যক্রমের অধীনে ফাতেমা টেলিমেডিসিন সেন্টারের তত্ত্বাবধানে এ সেবার আনুষ্টানিক উদ্বোধন করা হয়।

হোমনা পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট মো. নজরুল ইসলাম এর উদ্বোধন করেন। এর মাধ্যমে গ্রামীণ জনগণের নিকট মানসম্মত ও সুলভ স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের লক্ষে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ‘টেলিমেড’ সেবা চালু করা হয়েছে। এ সেবার আওতায় দুই জন প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্যকর্মী (টেলি আপা) বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ইন্টারনেটের মাধ্যমে সরাসরি ঢাকার বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররের পরামর্শ গ্রহণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। রোগী সাথে সাথে সরাসরি তার নিজের মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ডাক্তারের পরামর্শ পেয়ে যাচ্ছেন। টেলিমেডিসিনসেবা কার্যক্রম স্থানীয় উদ্যেক্তাদের মাধ্যমে ভবিষ্যতে স্বনির্ভর হওয়ার একটি মডেল। বর্তমানে ১৪টি কেন্দ্র চালু আছে।

গত ২০১৫ সালের ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারি ২০১৭ সাল পর্যন্ত চার হাজার রোগীকে এ সেবা দেওয়া হয়েছে। যার সত্তর শতাংশ হচ্ছেন বৃদ্ধ, মহিলা ও শিশু। সারা দেশে ইউনিয়নভিত্তিক কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।

হোমনায় টেলিমেডিসিনসেবা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর কাউন্সিলর সোবহান মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য মো. আমির হোসেনসহ স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিগণ।