ঢাকা ০২:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় নিরাপত্তা আচরণ বিধি বিষয়ক মতবিনিময় সভা

তপন সরকার, হোমনা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আইন,শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে প্রার্থীদের মধ্যে দারুন উদ্ধেগ-উৎকন্ঠা বিরাজ করছে । ২৮ মে নির্বাচনে ভোট অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ভোট কেন্দ্রে প্রার্থীর পক্ষের এজেন্টদের নিরাপত্তা দেয়ার ও দাবী জানিয়েছেন প্রার্থীরা।

বুধবার উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত আইনশৃংখলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রার্থীরা এ দাবী জানান।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা জেলার অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলামুর রহমান ও বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রাশেদুল ইসলাম । তবে নির্বাচন অবাধ,সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে প্রশাসনের পক্ষে জোড়ালো বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম, ওসি মো. আবুল ফয়সল ।

সভায় ৪নং চান্দেরচর ইউনিয়নের ২নং সংরক্ষিত প্রার্থী শাহনাজ পারভীন (আইভি) বলেন, ভোটাররা যেন নিরাপদে ভোট দিতে পারে সে ব্যবস্থা প্রশাসনকে করতে হবে। জনগন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগকরার নিশ্চিয়তা দিতে হবে ।

৩নংদুলালপুর ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থীর পক্ষে তার ভাই জালাল উদ্দিন সরকার বলেন, আমাদের উপর হামলা করা হয়েছে, মামলা দেওয়ার পরও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি, এখন আমরা প্রচারণা চালাতে পারছিনা। আমাদের উপর আওয়ামী লীগের প্রার্থীর লোকজন আবারও হামলা চালিয়ে আমাদের প্রাণনাশ করতে পারে,আমরা জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত রয়েছি। পরে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়। ১নংমাথাভাঙ্গা ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম মোল্লা বলেন, আমি ৬টি ওয়ার্ডে কোনো প্রচারণা চালাতে পারিনি। আমাকে ও আমার কর্মীদেরকে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকেরা হুমকি-ধামকি দিচ্ছে, ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। জনগণ যাতে সুষ্ঠু ভাবে ভোট দিতে পারে সে ব্যবস্থা করতে প্রশাসনের নিকট দাবী জানাচ্ছি।কিন্ত আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নাজিরুল হক ভুইয়া এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিএনপির প্রার্থী আমার সমর্থকদের মারধর করা হচ্ছে। আমি প্রশাসনকে জানিয়েছি । তিনিও অবাধ,সুষ্ঠু নির্বাচন করতে প্রশাসনের নিকট দাবী জানায়। ৭নং ভাসানিয়া ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী আবু নাছের ওয়াহেদ সম্পদ বলেন,আমার কর্মী-সমর্থকেরা নির্বাচনে পোলিং এজেন্ট হতে ভয় পাচ্ছেন তাদেরকে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। আমার কর্মী-সমর্থকেরা এজেন্ট হলে তার নিরাপত্তা দিতে পশাসনের নিকট দাবী জানাচ্ছি ।

৪নং চান্দেরচর ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী মাওলানা আবদুল কুদ্দুছ বলেন, চান্দেরচর ইউনিয়ন উপজেলার সীমান্তবর্তী হওয়ায় সীমানার চারটি কেন্দ্র অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ন এখানে বহিরাগত ভাড়াকরা সন্ত্রাসী ভোট কেটে ফেলতে পারে। ইতিমধ্যে বহিরাগতরা মোটর সাইকেল নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে মহড়া দিচ্ছে এবং ভোট কেটে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে। এ ছাড়া ঘাগুটিয়া ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী মফিজুল ইসলাম গনি, জাপার প্রার্থী মালেক আফসারী, ঘারমোড়া ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থীর শাহজাহান মোল্লা, আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুল করিম, আছাদপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী জালাল উদ্দিন পাঠান বক্তব্য দেন।

এ সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে নির্বাচন অবাধ,সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহনের আশ^াস দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপজেলায় দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত নির্বাহী হাকিম মো. মনজুর হোসেন,উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রির্টানিং কর্মকর্তা মো. কামল হোসেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. জুলফিকার আলী, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো.আজহারুল ইসলাম, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন, থানা হোমনা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল ফয়সলসহ তিন শতাধিক প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন।

থানা সূত্রে জানাগেছে, এ পর্যন্ত থানায় ১৫ টি অভিযোগ পাওয়া গেছে এর মধ্যে ৫টি অভিযোগের নিয়মিত মামলা নেয়া হয়েছে বাকি অভিযোগের সাধারণ ডায়েরী ,জিডি, করা হয়েছে ।

ট্যাগস

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

হোমনায় নিরাপত্তা আচরণ বিধি বিষয়ক মতবিনিময় সভা

আপডেট সময় ০৩:৫০:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ মে ২০১৬

তপন সরকার, হোমনা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আইন,শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে প্রার্থীদের মধ্যে দারুন উদ্ধেগ-উৎকন্ঠা বিরাজ করছে । ২৮ মে নির্বাচনে ভোট অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ভোট কেন্দ্রে প্রার্থীর পক্ষের এজেন্টদের নিরাপত্তা দেয়ার ও দাবী জানিয়েছেন প্রার্থীরা।

বুধবার উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত আইনশৃংখলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রার্থীরা এ দাবী জানান।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা জেলার অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলামুর রহমান ও বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রাশেদুল ইসলাম । তবে নির্বাচন অবাধ,সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে প্রশাসনের পক্ষে জোড়ালো বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম, ওসি মো. আবুল ফয়সল ।

সভায় ৪নং চান্দেরচর ইউনিয়নের ২নং সংরক্ষিত প্রার্থী শাহনাজ পারভীন (আইভি) বলেন, ভোটাররা যেন নিরাপদে ভোট দিতে পারে সে ব্যবস্থা প্রশাসনকে করতে হবে। জনগন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগকরার নিশ্চিয়তা দিতে হবে ।

৩নংদুলালপুর ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থীর পক্ষে তার ভাই জালাল উদ্দিন সরকার বলেন, আমাদের উপর হামলা করা হয়েছে, মামলা দেওয়ার পরও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি, এখন আমরা প্রচারণা চালাতে পারছিনা। আমাদের উপর আওয়ামী লীগের প্রার্থীর লোকজন আবারও হামলা চালিয়ে আমাদের প্রাণনাশ করতে পারে,আমরা জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত রয়েছি। পরে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়। ১নংমাথাভাঙ্গা ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম মোল্লা বলেন, আমি ৬টি ওয়ার্ডে কোনো প্রচারণা চালাতে পারিনি। আমাকে ও আমার কর্মীদেরকে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকেরা হুমকি-ধামকি দিচ্ছে, ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। জনগণ যাতে সুষ্ঠু ভাবে ভোট দিতে পারে সে ব্যবস্থা করতে প্রশাসনের নিকট দাবী জানাচ্ছি।কিন্ত আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নাজিরুল হক ভুইয়া এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিএনপির প্রার্থী আমার সমর্থকদের মারধর করা হচ্ছে। আমি প্রশাসনকে জানিয়েছি । তিনিও অবাধ,সুষ্ঠু নির্বাচন করতে প্রশাসনের নিকট দাবী জানায়। ৭নং ভাসানিয়া ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী আবু নাছের ওয়াহেদ সম্পদ বলেন,আমার কর্মী-সমর্থকেরা নির্বাচনে পোলিং এজেন্ট হতে ভয় পাচ্ছেন তাদেরকে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। আমার কর্মী-সমর্থকেরা এজেন্ট হলে তার নিরাপত্তা দিতে পশাসনের নিকট দাবী জানাচ্ছি ।

৪নং চান্দেরচর ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী মাওলানা আবদুল কুদ্দুছ বলেন, চান্দেরচর ইউনিয়ন উপজেলার সীমান্তবর্তী হওয়ায় সীমানার চারটি কেন্দ্র অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ন এখানে বহিরাগত ভাড়াকরা সন্ত্রাসী ভোট কেটে ফেলতে পারে। ইতিমধ্যে বহিরাগতরা মোটর সাইকেল নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে মহড়া দিচ্ছে এবং ভোট কেটে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে। এ ছাড়া ঘাগুটিয়া ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী মফিজুল ইসলাম গনি, জাপার প্রার্থী মালেক আফসারী, ঘারমোড়া ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থীর শাহজাহান মোল্লা, আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুল করিম, আছাদপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী জালাল উদ্দিন পাঠান বক্তব্য দেন।

এ সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে নির্বাচন অবাধ,সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহনের আশ^াস দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপজেলায় দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত নির্বাহী হাকিম মো. মনজুর হোসেন,উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রির্টানিং কর্মকর্তা মো. কামল হোসেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. জুলফিকার আলী, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো.আজহারুল ইসলাম, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন, থানা হোমনা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল ফয়সলসহ তিন শতাধিক প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন।

থানা সূত্রে জানাগেছে, এ পর্যন্ত থানায় ১৫ টি অভিযোগ পাওয়া গেছে এর মধ্যে ৫টি অভিযোগের নিয়মিত মামলা নেয়া হয়েছে বাকি অভিযোগের সাধারণ ডায়েরী ,জিডি, করা হয়েছে ।