ঢাকা ০৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হোমনায় মুসল্লিদের মসজিদ বয়কট, দলাদলি

হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার হোমনা উপজেলার জয়পুর গ্রামের বেপারী বাড়ি জামে মসজিদের ১৩৮ শতাংশ ভূমি ব্যক্তি নামে রেকর্ড করার অভিযোগে গত এক সপ্তাহ ধরে মসজিদে নামাজ পড়া বন্ধ করে দিয়েছে মুসল্লিরা। এ নিয়ে মুসল্লিদের মধ্য দলাদলিসহ উত্তেজনা বিরাজ করছে।
জানা গেছে, আনুমানিক শতাধিক বছর আগে গ্রামের জনৈক করিম বেপারী জয়পুর মধ্যপাড়া বেপারী বাড়ি জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠার জন্য ১৩৮ শতাংশ জমি দান করেন। বর্তমানে এ জমির উপর পাকা মসজিদ নির্মিত হয়েছে। কিন্তু নতুন ভূমি জরিপে এ জমি করিম বেপারীর ওয়ারিশদের নামে বিএস খতিয়ানে রেকর্ডভুক্ত হয়েছে।
মুসল্লিদের অভিযোগ, করিম বেপারীর ওয়ারিশরা মসজিদের সম্পত্তি দখলে নিতে কৌশলে বিএস খতিয়ানে তাদের নামে লিপিবদ্ধ করান।
করিম বেপারীর ওয়ারিশ মো. মহসিন ও মো. মোশারফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের নামে রেকর্ডভূক্ত জমি যদি মসজিদের সম্পত্তি হয় তাহলে আমরা তা মসজিদের নামে রেজিস্ট্রি করে দিব।’
মসজিদ কমিটির সভাপতি সাবেক বিভাগীয় কমিশনার আবদুর রশিদ সরকার বলেন, ‘মসজিদের সম্পত্তি করিম বেপারীর ওয়ারিশদের নামে রেকর্ডভুক্ত হওয়ায় অনেক মুসল্লি মসজিদ বয়কট করেছে। এটা তাদের উচিত হয় নাই। করিম বেপারীর ওয়ারিশদের সঙ্গে কথা হয়েছে তারা ওই জমি মসজিদের নামে রেজিস্ট্রি করে দিতে রাজি আছে। কিন্তু রেজিস্ট্রি করতে যে খরচ হয় ওই টাকা মসজিদ ফান্ডে না থাকায় রেজিস্ট্রি হচ্ছে না।’
ট্যাগস

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

হোমনায় মুসল্লিদের মসজিদ বয়কট, দলাদলি

আপডেট সময় ০৯:১৬:১৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬
হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার হোমনা উপজেলার জয়পুর গ্রামের বেপারী বাড়ি জামে মসজিদের ১৩৮ শতাংশ ভূমি ব্যক্তি নামে রেকর্ড করার অভিযোগে গত এক সপ্তাহ ধরে মসজিদে নামাজ পড়া বন্ধ করে দিয়েছে মুসল্লিরা। এ নিয়ে মুসল্লিদের মধ্য দলাদলিসহ উত্তেজনা বিরাজ করছে।
জানা গেছে, আনুমানিক শতাধিক বছর আগে গ্রামের জনৈক করিম বেপারী জয়পুর মধ্যপাড়া বেপারী বাড়ি জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠার জন্য ১৩৮ শতাংশ জমি দান করেন। বর্তমানে এ জমির উপর পাকা মসজিদ নির্মিত হয়েছে। কিন্তু নতুন ভূমি জরিপে এ জমি করিম বেপারীর ওয়ারিশদের নামে বিএস খতিয়ানে রেকর্ডভুক্ত হয়েছে।
মুসল্লিদের অভিযোগ, করিম বেপারীর ওয়ারিশরা মসজিদের সম্পত্তি দখলে নিতে কৌশলে বিএস খতিয়ানে তাদের নামে লিপিবদ্ধ করান।
করিম বেপারীর ওয়ারিশ মো. মহসিন ও মো. মোশারফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের নামে রেকর্ডভূক্ত জমি যদি মসজিদের সম্পত্তি হয় তাহলে আমরা তা মসজিদের নামে রেজিস্ট্রি করে দিব।’
মসজিদ কমিটির সভাপতি সাবেক বিভাগীয় কমিশনার আবদুর রশিদ সরকার বলেন, ‘মসজিদের সম্পত্তি করিম বেপারীর ওয়ারিশদের নামে রেকর্ডভুক্ত হওয়ায় অনেক মুসল্লি মসজিদ বয়কট করেছে। এটা তাদের উচিত হয় নাই। করিম বেপারীর ওয়ারিশদের সঙ্গে কথা হয়েছে তারা ওই জমি মসজিদের নামে রেজিস্ট্রি করে দিতে রাজি আছে। কিন্তু রেজিস্ট্রি করতে যে খরচ হয় ওই টাকা মসজিদ ফান্ডে না থাকায় রেজিস্ট্রি হচ্ছে না।’