ঢাকা ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় রিয়াদ হত্যার সন্দেহভাজন আসামী ছাড়া পেয়ে নিহতের পরিবারের উপর হামলা

তপন সরকার, হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার হোমনায় স্কুল ছাত্র রিয়াদ হত্যা সন্দেহে গ্রেফতার হওয়া দুই আসামী ছাড়া পেয়ে নিহত রিয়াদের পিতা সিরাজ মিয়া ও দুলাভাই বাবু মিয়াকে পিটিয়ে আহত করেছে।

আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স্রে ভর্তি করে চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে।

শুক্রবার সকালে নিহত স্কুল ছাত্র রিয়াদের নিজ গ্রাম উপজেলার মিরাশ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রিয়াদের চাচাত ভাই সফিকুল ইসলাম জানান, রিয়াদ হত্যায় জড়িত সন্দেহ পুলিশ একই গ্রামের দুলাল মিয়ার পুত্র ওয়াসেক ও হানিফ মিয়াকে গত বুধবার গ্রেফতার করে। পরে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে গতকাল বৃহস্পতিবার ছেড়ে দেয়া হয়। আজ শুক্রবার সকালে তারা বাড়িতে গিয়ে কেন তাদেরকে থানায় নিয়ে হয়রানি করা হলো- এই বলে রিয়াদের বাবা ও বোন জামাইকে পিটিয়ে আহত করে রাস্তায় ফেলে রাখে।

পরে স্থানীয় লোকজন ও তার স্বজনরা উদ্ধার করে আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভতি করে। গরীব ও নিরীহ হওয়ায় পুত্র শোকে পিতা ও তার মেয়ের জামাইকে মারধরের ঘটনায় এলাকায় নিন্দার জর বইছে। এ ব্যাপারে হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রসুুল আহম নিজামী জানান, বিষয়টি শুনে সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রকাশ, গত শনিবার বিকালে উপজেলার পঞ্চবটি এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় উপজেলার নিলখি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণি ছাত্র রিয়াদ। পরে একই দিন রাতে মোবাইলে ৭০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এরপর মুক্তিপণ দাবি করা দেবীদ্বার উপজেলার শিবনগর গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম(২৭), মুরাদনগর উপজেলার উত্তর ত্রিশ গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে মো. হেলাল(২৩) ও একই গ্রামের বারিক মিয়ার ছেলে খবির হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের দেয়া তথ্যমতে উপজেলার রামকৃককষ্ণপুর গ্রামের রুস্তম আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর আলমকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর তাদের দেয়া তথ্যমতে উপজেলার মনাইরকান্দি গ্রামের রাস্তার গর্ত থেকে বুধবার বিকালে রিয়াদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

হোমনায় রিয়াদ হত্যার সন্দেহভাজন আসামী ছাড়া পেয়ে নিহতের পরিবারের উপর হামলা

আপডেট সময় ০১:০৪:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর ২০১৭
তপন সরকার, হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার হোমনায় স্কুল ছাত্র রিয়াদ হত্যা সন্দেহে গ্রেফতার হওয়া দুই আসামী ছাড়া পেয়ে নিহত রিয়াদের পিতা সিরাজ মিয়া ও দুলাভাই বাবু মিয়াকে পিটিয়ে আহত করেছে।

আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স্রে ভর্তি করে চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে।

শুক্রবার সকালে নিহত স্কুল ছাত্র রিয়াদের নিজ গ্রাম উপজেলার মিরাশ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রিয়াদের চাচাত ভাই সফিকুল ইসলাম জানান, রিয়াদ হত্যায় জড়িত সন্দেহ পুলিশ একই গ্রামের দুলাল মিয়ার পুত্র ওয়াসেক ও হানিফ মিয়াকে গত বুধবার গ্রেফতার করে। পরে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে গতকাল বৃহস্পতিবার ছেড়ে দেয়া হয়। আজ শুক্রবার সকালে তারা বাড়িতে গিয়ে কেন তাদেরকে থানায় নিয়ে হয়রানি করা হলো- এই বলে রিয়াদের বাবা ও বোন জামাইকে পিটিয়ে আহত করে রাস্তায় ফেলে রাখে।

পরে স্থানীয় লোকজন ও তার স্বজনরা উদ্ধার করে আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভতি করে। গরীব ও নিরীহ হওয়ায় পুত্র শোকে পিতা ও তার মেয়ের জামাইকে মারধরের ঘটনায় এলাকায় নিন্দার জর বইছে। এ ব্যাপারে হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রসুুল আহম নিজামী জানান, বিষয়টি শুনে সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রকাশ, গত শনিবার বিকালে উপজেলার পঞ্চবটি এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় উপজেলার নিলখি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণি ছাত্র রিয়াদ। পরে একই দিন রাতে মোবাইলে ৭০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এরপর মুক্তিপণ দাবি করা দেবীদ্বার উপজেলার শিবনগর গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম(২৭), মুরাদনগর উপজেলার উত্তর ত্রিশ গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে মো. হেলাল(২৩) ও একই গ্রামের বারিক মিয়ার ছেলে খবির হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের দেয়া তথ্যমতে উপজেলার রামকৃককষ্ণপুর গ্রামের রুস্তম আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর আলমকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর তাদের দেয়া তথ্যমতে উপজেলার মনাইরকান্দি গ্রামের রাস্তার গর্ত থেকে বুধবার বিকালে রিয়াদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।