ঢাকা ০৭:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনা ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণ না হওয়ায় ক্ষোভ

হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার হোমনা উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হোমনা ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণ না হওয়া জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। হতাশার মধ্যে রয়েছে উপজেলার দু’ লক্ষাধিক মানুষ।
জানা গেছে, উপজেলায় কোনো কলেজ না থাকায় ১৯৮৪ সালে তত্কালীন হোমনার ইউএনও মো. আলাউদ্দিন নিজ উদ্যোগে স্থানীয় লোকজনকে নিয়ে উপজেলা সদরে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সরকারের মন্ত্রীসহ স্থানীয় এমপিরা কলেজটি জাতীয়করণের আশ্বাস দেন। বর্তমানে শিক্ষাবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথম দফায় ১৯৯টি কলেজ জাতীয়করণের ঘোষণা দিলেও ঐ তালিকায় হোমনা ডিগ্রি কলেজটি না থাকায় হোমনাবাসীর মধ্যে হতাশা শুরু হয়।
স্থানীয় সংসদ সদস্য ও কলেজের সভাপতি মো. আমির হোসেন ভুঁইয়া জানান, কলেজটি জাতীয়করণের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে ডিউ লেটার দেয়া হয়েছে এবং বেশ কয়েকবার জাতীয় সংসদে সর্বশেষ গত রমজান মাসেও আমার বক্তব্যে কলেজটি জাতীয়করণের দাবি জানিয়েছে।
কলেজের অধ্যক্ষ মো. কামাল হোসেন জানান, কলেজের অবকাঠামো ও আর্থিক অবস্থা এবং শিক্ষা কার্যক্রম অত্যন্ত ভাল। কলেজটি সরকারি হলে এখানকার গরীব শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে।
ট্যাগস

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

হোমনা ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণ না হওয়ায় ক্ষোভ

আপডেট সময় ০৫:২৪:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ জুলাই ২০১৬
হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার হোমনা উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হোমনা ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণ না হওয়া জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। হতাশার মধ্যে রয়েছে উপজেলার দু’ লক্ষাধিক মানুষ।
জানা গেছে, উপজেলায় কোনো কলেজ না থাকায় ১৯৮৪ সালে তত্কালীন হোমনার ইউএনও মো. আলাউদ্দিন নিজ উদ্যোগে স্থানীয় লোকজনকে নিয়ে উপজেলা সদরে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সরকারের মন্ত্রীসহ স্থানীয় এমপিরা কলেজটি জাতীয়করণের আশ্বাস দেন। বর্তমানে শিক্ষাবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথম দফায় ১৯৯টি কলেজ জাতীয়করণের ঘোষণা দিলেও ঐ তালিকায় হোমনা ডিগ্রি কলেজটি না থাকায় হোমনাবাসীর মধ্যে হতাশা শুরু হয়।
স্থানীয় সংসদ সদস্য ও কলেজের সভাপতি মো. আমির হোসেন ভুঁইয়া জানান, কলেজটি জাতীয়করণের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে ডিউ লেটার দেয়া হয়েছে এবং বেশ কয়েকবার জাতীয় সংসদে সর্বশেষ গত রমজান মাসেও আমার বক্তব্যে কলেজটি জাতীয়করণের দাবি জানিয়েছে।
কলেজের অধ্যক্ষ মো. কামাল হোসেন জানান, কলেজের অবকাঠামো ও আর্থিক অবস্থা এবং শিক্ষা কার্যক্রম অত্যন্ত ভাল। কলেজটি সরকারি হলে এখানকার গরীব শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে।