ঢাকা ০৮:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৩৮ আসনে সীমানা পরিবর্তনের খসড়া প্রকাশ

জাতীয় ডেস্কঃ

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সারাদেশের ৩৮টি আসনের সীমানা পরিবর্তন করে খসড়া প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। বুধবার নির্বাচন ভবনে কমিশনের বিশেষ বৈঠক শেষে খসড়া প্রকাশ করা হয়। সীমানা চূড়ান্ত করার পর গেজেট প্রকাশ করা হবে।

বুধবার দুপুরে কমিশন সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন অাহমদ। তিনি বলেন, অাজকেই এই তালিকা বিজ্ঞপ্তি অাকারে প্রকাশ করা হবে। কারও কোনো দাবি বা অাপত্তি থাকলে ১ এপ্রিল বিকেল ৫টা পর্যন্ত অাবেদন করতে পারবেন।

দশম সংসদ নির্বাচনের পর গঠিত নতুন উপজেলা ও বিলুপ্ত ছিটমহলকে যুক্ত করে এ ৩৮ আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণের খসড়া প্রস্তুত করেছে সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিটি। খসড়া অনুযায়ী, ২০১৩ সালে দশম সংসদে আসন যেভাবে ছিল, সেভাবে থাকবে। নতুন উপজেলা ও ছিটমহলগুলো সংসদীয় আসনের সঙ্গে যুক্ত হবে।

এ বিষয়ে হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, ঢাকার ৫টি, নারায়ণগঞ্জের ২টি, নীলফামারীতে ১টি, রংপুরে ৩টি, কুড়িগ্রামে ২টি, পাবনায় ২টি, মাগুরায় ২টি, খুলনায় ২টি, সাতক্ষীরায় ২টি, জামালপুরের ২টি, শরীয়তপুরের ২টি, মৌলভীবাজারেরর ২টি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ২টি, কুমিল্লার ৪টি, নোয়াখালীর ২টি এবং চট্টগ্রামের ২টি অাসনে পরিবর্তন অানা হয়েছে।

এছাড়া ২০১৩ সালের পর নবগঠিত উপজেলাগুলো যুক্ত করে সীমানা পুনর্নির্ধারণ করা হবে। সেইসঙ্গে  লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম ও নীলফামারী জেলার আসনে ছিটমহলের কারণে পরিবর্তন আসবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

৩৮ আসনে সীমানা পরিবর্তনের খসড়া প্রকাশ

আপডেট সময় ০৮:২৭:০৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ মার্চ ২০১৮
জাতীয় ডেস্কঃ

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সারাদেশের ৩৮টি আসনের সীমানা পরিবর্তন করে খসড়া প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। বুধবার নির্বাচন ভবনে কমিশনের বিশেষ বৈঠক শেষে খসড়া প্রকাশ করা হয়। সীমানা চূড়ান্ত করার পর গেজেট প্রকাশ করা হবে।

বুধবার দুপুরে কমিশন সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন অাহমদ। তিনি বলেন, অাজকেই এই তালিকা বিজ্ঞপ্তি অাকারে প্রকাশ করা হবে। কারও কোনো দাবি বা অাপত্তি থাকলে ১ এপ্রিল বিকেল ৫টা পর্যন্ত অাবেদন করতে পারবেন।

দশম সংসদ নির্বাচনের পর গঠিত নতুন উপজেলা ও বিলুপ্ত ছিটমহলকে যুক্ত করে এ ৩৮ আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণের খসড়া প্রস্তুত করেছে সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিটি। খসড়া অনুযায়ী, ২০১৩ সালে দশম সংসদে আসন যেভাবে ছিল, সেভাবে থাকবে। নতুন উপজেলা ও ছিটমহলগুলো সংসদীয় আসনের সঙ্গে যুক্ত হবে।

এ বিষয়ে হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, ঢাকার ৫টি, নারায়ণগঞ্জের ২টি, নীলফামারীতে ১টি, রংপুরে ৩টি, কুড়িগ্রামে ২টি, পাবনায় ২টি, মাগুরায় ২টি, খুলনায় ২টি, সাতক্ষীরায় ২টি, জামালপুরের ২টি, শরীয়তপুরের ২টি, মৌলভীবাজারেরর ২টি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ২টি, কুমিল্লার ৪টি, নোয়াখালীর ২টি এবং চট্টগ্রামের ২টি অাসনে পরিবর্তন অানা হয়েছে।

এছাড়া ২০১৩ সালের পর নবগঠিত উপজেলাগুলো যুক্ত করে সীমানা পুনর্নির্ধারণ করা হবে। সেইসঙ্গে  লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম ও নীলফামারী জেলার আসনে ছিটমহলের কারণে পরিবর্তন আসবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।