ঢাকা ০৩:০৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় পিএসসি পরীক্ষায় দায়িত্ব বণ্টনে অনিয়মের অভিযোগ

তপন সরকার, হোমনা (কুমিল্লা) প্রিতিনিধিঃ

আসন্ন্য প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনি (পিএসসি) পরিক্ষায় কুমিল্লা হোমনায় উপজেলায় কেন্দ্রে শিক্ষকদের দায়িত্ব বন্টনে অনিযমের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে ।

শুক্রবার বিকেলে এ নিয়ে শিক্ষকদের একটি বড় অংশ উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: আল আমিনের নিকট এ ক্ষোভ প্রকাশ করে এর প্রতিকারের আহবান জানান।

জানা যায়, উপজেলা সহকারি শিক্ষক কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন অফিস সহকারী আবুল হোসেনের যোগসাজসে বিগত দিনের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রধান শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে বাদ দিয়ে কেন্দ্রে নকলের সুযোগ দেয়ার উদ্দেশ্যে কেন্দ্র সচিবের পছন্দের শিক্ষককে অনৈতিক অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে সহকারী শিক্ষক ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের কেন্দ্রের সহকারী হল সুপার নিয়োগ করা হয়েছে ।

এদের মধ্যে রামকৃষ্ণপুর কেন্দ্রের সহকারী হল সুপার ইটাভড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে উপবৃত্তির টাকা আত্মসাৎসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে । তার কারনে এক পরীক্ষার্থী গত বছর সমাপনি পরীক্ষা দিতে পারেনি। এ নিয়ে দৈনিক বেশ কযেকটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল।

এ ছাড়া বিজয় নগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সোহেলী আক্তার ও নারায়নপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমানকে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কক্ষ পরিদর্শক হিসেবে নিয়োগ দিয়ে অপমান করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকালে পরীক্ষা কেন্দ্রের দ্বায়িত্ব পালনের চিঠি পাওয়ার পর শুক্রবার বিকেলে প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান, লুৎফর রহমান, জেসমিন আক্তার, হুমায়ুন কবির, কবির আহম্মদ, সোহেলী আক্তার, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুস সালাম, সহকারী শিক্ষক সামসুউদ্দিন খান দুলাল, আবুল কালাম অজাদ, বোরহান উদ্দিন, মনিরুজ্জামান, ইমান উদ্দিন ইমন, বিভাষ চন্দ্র সূত্রধর সহ ২০/২৫ জন শিক্ষক শিক্ষা অফিসারের সাথে দেখা তাদের অভিযোগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। ।
এ বিষযে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আল আমিন জানান, শিক্ষকদের অভিযোগ শুনেছি। তবে কেন্দ্রে দায়িত্ব বণ্টনের তালিকা করার জন্য সহকারি শিক্ষা অফিসারদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে । সুস্ঠুভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সব রকম ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগর বাবুটিপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতির ইন্তেকাল

হোমনায় পিএসসি পরীক্ষায় দায়িত্ব বণ্টনে অনিয়মের অভিযোগ

আপডেট সময় ০১:০৬:০৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৬
তপন সরকার, হোমনা (কুমিল্লা) প্রিতিনিধিঃ

আসন্ন্য প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনি (পিএসসি) পরিক্ষায় কুমিল্লা হোমনায় উপজেলায় কেন্দ্রে শিক্ষকদের দায়িত্ব বন্টনে অনিযমের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে ।

শুক্রবার বিকেলে এ নিয়ে শিক্ষকদের একটি বড় অংশ উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: আল আমিনের নিকট এ ক্ষোভ প্রকাশ করে এর প্রতিকারের আহবান জানান।

জানা যায়, উপজেলা সহকারি শিক্ষক কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন অফিস সহকারী আবুল হোসেনের যোগসাজসে বিগত দিনের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রধান শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে বাদ দিয়ে কেন্দ্রে নকলের সুযোগ দেয়ার উদ্দেশ্যে কেন্দ্র সচিবের পছন্দের শিক্ষককে অনৈতিক অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে সহকারী শিক্ষক ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের কেন্দ্রের সহকারী হল সুপার নিয়োগ করা হয়েছে ।

এদের মধ্যে রামকৃষ্ণপুর কেন্দ্রের সহকারী হল সুপার ইটাভড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে উপবৃত্তির টাকা আত্মসাৎসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে । তার কারনে এক পরীক্ষার্থী গত বছর সমাপনি পরীক্ষা দিতে পারেনি। এ নিয়ে দৈনিক বেশ কযেকটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল।

এ ছাড়া বিজয় নগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সোহেলী আক্তার ও নারায়নপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমানকে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কক্ষ পরিদর্শক হিসেবে নিয়োগ দিয়ে অপমান করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকালে পরীক্ষা কেন্দ্রের দ্বায়িত্ব পালনের চিঠি পাওয়ার পর শুক্রবার বিকেলে প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান, লুৎফর রহমান, জেসমিন আক্তার, হুমায়ুন কবির, কবির আহম্মদ, সোহেলী আক্তার, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুস সালাম, সহকারী শিক্ষক সামসুউদ্দিন খান দুলাল, আবুল কালাম অজাদ, বোরহান উদ্দিন, মনিরুজ্জামান, ইমান উদ্দিন ইমন, বিভাষ চন্দ্র সূত্রধর সহ ২০/২৫ জন শিক্ষক শিক্ষা অফিসারের সাথে দেখা তাদের অভিযোগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। ।
এ বিষযে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আল আমিন জানান, শিক্ষকদের অভিযোগ শুনেছি। তবে কেন্দ্রে দায়িত্ব বণ্টনের তালিকা করার জন্য সহকারি শিক্ষা অফিসারদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে । সুস্ঠুভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সব রকম ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।